তুর্কি ধানে জুমিয়াদের হাসি

তুর্কি ধানে জুমিয়াদের হাসি

জুমের সোনালী ধানে রাঙামাটির পাহাড়গুলো চকচক করছে। শুরু হয়েছে ধান কাটার উৎসব। জুম চাষিদের চোখে-মুখে এখন আনন্দের ফোয়ারা বইছে। পাকা ধান ঘরে তুলতে ব্যস্ত সময় পার করছেন জুমিয়ারা। পার্বত্য চট্টগ্রামের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের প্রধান পেশা হচ্ছে কৃষি। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) অনেকে জুমের ফসল কাটতে শুরু করেছেন। রাঙামাটি সদর উপজেলার মগবান ইউনিয়নের বিলাইছড়ি পাড়ার বাসিন্দা জুমচাষি সুমিত্রা চাকমা বাংলানিউজকে বলেন, দুই একর জমিতে আমি সাত কেজি তুর্কি ধান লাগিয়েছিলাম। ফসল কাটছি এখন। আমি বরকল উপজেলায় গেলে আমার…

বিস্তারিত

ভালো ফলন, তবুও হতাশ পান চাষিরা

ভালো ফলন, তবুও হতাশ পান চাষিরা

কয়েকমাস ধরে প্রচুর বৃষ্টিপাতে উপকূলীয় জনপদ বরগুনার বেতাগীতে পানের ভালো ফলন হয়েছে। তবুও হাসি নেই চাষিদের মুখে। কারণ, ফলন ভালো হলেও সঠিক দাম পাচ্ছে না কৃষকরা। ঋণ করে পান পান চাষ করলেও এখন পান বিক্রি করে ঋণ পরিশোধ করতে পারছেন না। উপজেলা কৃষি অফিস থেকে জানা গেছে, বেতাগী পৌরসভাসহ সাতটি ইউনিয়নে ৭০ হেক্টর জমিতে এ বছর পান চাষ করেছেন চাষিরা। এ পেশার সঙ্গে সাড়ে ৬০০ পরিবার সম্পৃক্ত রয়েছে। পাইকারি ও খুচরাসহ ছোট বড় সব মিলিয়ে…

বিস্তারিত

সৈয়দপুরে বারোমাসি পেঁয়াজের পরীক্ষামূলক চাষ

সৈয়দপুরে বারোমাসি পেঁয়াজের পরীক্ষামূলক চাষ

বারোমাসি পেঁয়াজের পরীক্ষামূলক চাষ শুরু হয়েছে নীলফামারীর সৈয়দপুরে। এই চাষ সফল হলে পেঁয়াজ নিয়ে যে সংকট সেটি আর থাকবে না বলে আশা করা হচ্ছে। এরকম টার্গেট নিয়ে কাজ করছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ। উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নে প্রথমে ৩০ জন কৃষক ও জমি বাছাই করা হয়। সরকারি প্রণোদনার আওতায় তাদের দেওয়া হয় পেঁয়াজের বীজ, সার ও আর্থিক সহায়তাসহ অন্যান্য সুবিধা। উপজেলার কামারপুকুর, কাশিরাম বেলপুকুর, খাতামধুপুর, বাঙালিপুর ও বোতলাগাড়ি ইউনিয়নে কৃষকরা সেই বীজ নিয়ে অংকুরোদগম করেন। তারপর জমি…

বিস্তারিত

শীতের আগাম সবজির ফলন ভালো হলেও দাম নিয়ে হতাশ কৃষক

শীতের আগাম সবজির ফলন ভালো হলেও দাম নিয়ে হতাশ কৃষক

ঢাকার ধামরাইয়ে আগাম শীতকালীন সবজির ব্যাপক ফলনে কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে। তবে পাইকারি বাজারের দর শুনে সেই হাসি ধরে রাখতে পারছেন না তারা। খুচরা বাজারে ক্রেতারা চড়া দামে সবজি কিনলেও পাইকারি বাজারে কৃষকরা সবজি বিক্রি করছেন আগের মূল্যের চেয়ে মাত্র ৫-৭ টাকা বেশিতে। অর্থাৎ কেজি প্রতি ২০-৪০ টাকায় বিক্রি করছেন। শাকের ক্ষেত্রেও একই অবস্থা। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, খুচরা বাজারে আগাম শীতকালীন সবজির দামের ঊর্ধ্বগতির কারণে ভোক্তাদের পকেট ফাঁকা। তবে বাজারে দাম বাড়লেও কৃষকের কাছে…

বিস্তারিত

৩৫ লাখ টন খাদ্য মজুতের লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার

৩৫ লাখ টন খাদ্য মজুতের লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, সাড়ে ২২ লাখ টন খাদ্য মজুতের সক্ষমতা অর্জন করেছি। ২০৩০ সালের মধ্যে ৩৫ লাখ টন খাদ্য মজুতের ব্যবস্থা করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে সরকার। এছাড়া আগামী ছয় মাসের মধ্যে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির সুবিধাভোগীদের ডিজিটাল কার্ডের আওতায় আনা হবে। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে মানিকগঞ্জের শিবালয় পরিষদ হলরুমে নিরাপদ খাদ্য সংরক্ষণের জন্য হাউজহোল্ড সাইলো বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। খাদ্যমন্ত্রী আরও বলেন, আগের মতো কোনো মাস্তান অথবা ব্যবসায়ী গোডাউনে ধান দিবে সেই…

বিস্তারিত

হিমাগারের আলু নিয়ে বিপাকে জয়পুরহাটের চাষি-ব্যবসায়ী

হিমাগারের আলু নিয়ে বিপাকে জয়পুরহাটের চাষি-ব্যবসায়ী

দাম কমের কারণে হিমাগারে সংরক্ষণ করা আলু নিয়ে বিপাকে পড়েছেন জয়পুরহাটের চাষি, ব্যবসায়ী ও হিমাগার মালিকরা। এলাকার কৃষক, ব্যবসায়ী ও হিমাগার সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অনুকূল আবহাওয়া থাকায় গত বছর আলুর বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষক ও ব্যবসায়ীরা অধিক লাভের আশায় বিক্রি না করে আলু হিমাগারে সংরক্ষণ করেন। ফলে গত বছরের তুলনায় হিমাগারে আলুর সংরক্ষণ এবার বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ। যার প্রভাব পড়েছে চলতি মৌসুমে। হিমাগারে আলুর দাম কমেছে, পাশাপাশি কমেছে আলুর আনলোডের (খালাস) পরিমাণও।…

বিস্তারিত

১০টি ডিজিটাল গ্রাম গড়ে তোলা হবে: জুনাইদ আহমেদ পলক

১০টি ডিজিটাল গ্রাম গড়ে তোলা হবে: জুনাইদ আহমেদ পলক

ভোক্তাকণ্ঠ ডেস্ক তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, দেশের ১০টি গ্রামকে ডিজিটাল গ্রাম হিসেবে গড়ে তোলা হবে। পর্যায়ক্রমে ২০৪১ সালের মধ্যে এক হাজার গ্রামকে স্মার্টফার্মিংয়ের আওতায় নিয়ে আসা হবে। রবিবার বাংলাদেশ কৃষি অর্থনীতিবিদ সমিতির উদ্যোগে ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে আয়োজিত ‘চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ও বাংলাদেশের কৃষি যান্ত্রিকীকরণ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ২০ হাজার কৃষককে টার্গেট করে সাড়ে ৩ হাজার উদ্যোক্তা তৈরি এবং ১০টি ডিজিটাল গ্রাম গড়ে তোলার…

বিস্তারিত

সোনালি আঁশ চাষে ঝুঁকছেন চাষিরা

সোনালি আঁশ চাষে ঝুঁকছেন চাষিরা

রংপুর প্রতিনিধি ন্যায্যমূল্য পাওয়ার পাট চাষে ঝুঁকছেন চাষিরা। এখন পাটচাষে প্রতি বিঘা জমিতে খরচ হচ্ছে ১৫ হাজার টাকা। আর বাজারে বিঘা প্রতি ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে পাট। সঙ্গে রফতানি প্রক্রিয়া সহজ হওয়ায় বেড়েছে পাটজাত পণ্যের চাহিদা। কৃষি বিভাগ বলছে, সোনালি আঁশখ্যাত পাটকে ঘিরে সোনালি স্বপ্ন বুনছেন চাষিরা। কদর বেড়েছে সোনালী আঁশের রুপার কাঠিরও। গ্রামের পাশাপাশি এখন শহরেও ভালো দামে বিক্রি হচ্ছে পাটকাঠি। সঙ্গে পাটজাত পণ্যের চাহিদাকে ঘিরে তৈরি হচ্ছে শিল্পোদ্যোক্তা। গেল কয়েক বছরে জেলায়…

বিস্তারিত

আলুর ন্যায্য দাম পাবেন না কৃষকরা: বাণিজ্যমন্ত্রী

আলুর ন্যায্য দাম পাবেন না কৃষকরা: বাণিজ্যমন্ত্রী

রংপুর প্রতিনিধি চলতি বছর দেশে আলুর ভালো ফলন হয়েছে। ফলে কৃষকরা ন্য়ায্য দাম পাবেন না। বাজারে দাম কমবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রংপুর টাউন হলে রংপুর মহানগর মুক্তিযোদ্ধাদের মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি কথা নিয়ে রচিত স্মৃতিতে রণাঙ্গন গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ডিমান্ড আর সাপ্লাইয়ের কারণে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষপত্রের দাম বাড়ছে। কারণ চাহিদার তুলনায় অনেক বেশি আলু উৎপাদন হয়েছে। তারপরেও আমরা চেষ্টা করছি…

বিস্তারিত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ২৭ কোটি টাকার মাল্টা উৎপাদন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ২৭ কোটি টাকার মাল্টা উৎপাদন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এবার ব্যাপক মাল্টাচাষ হয়েছে। ১৩৫ হেক্টর জমিতে চাষাবাদে প্রায় ২ হাজার ৭০০ মেট্রিক টন মাল্টা পাওয়ার আশা করছে কৃষি বিভাগ। যার বাজার মূল্য ২৭ কোটি টাকারও বেশি। বাইরের অংশ সবুজ আর ভেতরটা মিষ্টি রসে ভরা। ছয় বছর ধরে জেলার তিন উপজেলায় চাষ হচ্ছে মাল্টা। স্বল্প খরচে লাভ বেশি হওয়ায় প্রতি বছরই নতুন নতুন কৃষক মাল্টা চাষে ঝুঁকছেন। কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, জেলার কসবা, আখাউড়া ও বিজয়নগরের মাটি মাল্টা চাষের জন্য উত্তম। ফলন ও…

বিস্তারিত
1 2 3 15