দুর্ভোগ ও যানজট নিরসনে ঢাকা-গাজীপুর রুটে বিশেষ ট্রেন

দুর্ভোগ ও যানজট নিরসনে ঢাকা-গাজীপুর রুটে বিশেষ ট্রেন

ঢাকা-গাজীপুর রুটে চলাচলকারী মানুষের ভোগান্তি নিরসনে চালু হচ্ছে বিশেষ ট্রেন। মহাসড়কের যানজটের কারণে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এই রুটে চলাচলকারী সাধারণ মানুষের। দুর্ভোগ নিরসনে আগামী রোববার (২০ জুন) থেকে গাজীপুর-ঢাকা রুটে চালু হচ্ছে তিনটি বিশেষ ট্রেন সার্ভিস। বুধবার (১৬ জুন) রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ কথা জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। ফেসবুক পোস্টে প্রতিমন্ত্রী লেখেন, সীমাহীন এই দুর্ভোগ কমাতে রেলমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে রোববার (২০ জুন) থেকে গাজীপুর-ঢাকা রুটে বিশেষ ট্রেন সার্ভিস চালু…

বিস্তারিত

‘কক্সবাজার-দোহাজারী-ঘুমধুম রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পের’ কাজ এগিয়ে চলছে

‘কক্সবাজার-দোহাজারী-ঘুমধুম রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পের’ কাজ এগিয়ে চলছে

অনুমোদন হলেও ঋণচুক্তি ও ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়ার জটমুক্ত হতে কেটে গেছে ছয় বছর। তবে আশার কথা হলো, সব জটিলতা কাটিয়ে বর্ষাকালের প্রতিকূলতা ও করোনা সংক্রমণের ঝুঁকির মধ্যেও সরকারের অগ্রাধিকার প্রকল্প ‘কক্সবাজার-দোহাজারী-ঘুমধুম রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পের’ কাজ এগিয়ে যাচ্ছে। প্রকল্পের অধীন পর্যটন নগরী কক্সবাজারে হচ্ছে ঝিনুক আকৃতির ‘আইকনিক স্টেশন’। ১২৮ কিলোমিটার রেলপথে স্টেশন হবে নয়টি। সাঙ্গু, মাতামুহুরী ও বাঁকখালী নদীর ওপর হচ্ছে তিনটি বড় সেতু। সাতকানিয়ার কেঁওচিয়ায় নির্মাণ হচ্ছে উড়াল সেতু। • গত ৩১ মার্চ পর্যন্ত অগ্রগতি…

বিস্তারিত

ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হলো প্রায় ১১ ঘন্টা পর

ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হলো প্রায় ১১ ঘন্টা পর

হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডব চলে টানা তিনদিন। এখন কিছুটা শান্ত হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সার্বিক পরিস্থিতি। তাণ্ডবের কারণে প্রায় ১১ ঘন্টা বন্ধ থাকা ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। এসময়  ঢাকা-সিলেট, ঢাকা-নোয়াখালী ও ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথ  বন্ধ ছিল।   ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনের স্টেশন মাস্টার শোয়েব আহমেদ বলেন, রোববার সকাল নয়টায় সিলেটের জন্য  পারাবত এক্সপ্রেস ছেড়ে যায়। এরপর হরতালে উত্তপ্ত পরিস্থিতির কারণে ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হয়। পরে রাত ১০টার দিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ট্রেন চলাচল শুরু হয়। এর আগে রোববার সকাল নয়টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়…

বিস্তারিত

মেয়াদ শেষে কাজ হয়েছে মাত্র ৩০ শতাংশ

মেয়াদ শেষে কাজ হয়েছে মাত্র ৩০ শতাংশ

২০১০ সালে কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেলপথ পুনর্বাসনের উদ্যোগ নেয় সরকার। ভারত-বাংলাদেশের মধ্যকার পণ্য পরিবহন ও আঞ্চলিক বাণিজ্য বাড়াতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল। ২০১৮ সালে ১০ আগস্ট শুরু এ প্রকল্পের কাজ শুরু হয়, আর কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালের ডিসেম্বরে। তবে নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ হয়েছে মাত্র ৩০ শতাংশ। কাজে ধীরগতি ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নজরদারির অভাব এর মূল কারণ। পরে আরো দেড় বছর সময় বাড়ানো হয়েছে বাকি ৭০ শতাংশ কাজ শেষ করার জন্য। বর্ধিত এ সময়ের…

বিস্তারিত